বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তি

বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তি

জর্জ ওয়াশিংটনঃ যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম প্রেসিডেন্ট এবং জাতির জনক (১৭৮৯-১৭৯৭) হোয়াইট হাউজে বসবাস করেন নি।

আব্রাহাম লিংকনঃ যুক্তরাষ্ট্রের ১৬ তম প্রেসিডেন্ট।Democracy is a government of the people, by the people and for the people. তিনি ১৯৬৩ সালে দাস প্রথা বিলুপ্ত করেন। ১৯৬৫ সালে গৃহযুদ্ধ শেষ হয়।

উড্রো উইলসনঃ ১৯১৮ নোবেল শান্তি যুক্তরাষ্ট্রের ২৮ তম প্রেসিডেন্ট। লীগ অব নেশনস এর প্রতিষ্ঠাতা। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন।*১৯৬২ সালে কিউবা ক্ষেপনাস্ত্র সংকটের সময় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন জন এফ কেনেডি। ৩৫ তম।

রিচার্ড নিক্সনঃ যুক্তরাষ্ট্রের ৩৭ তম রাষ্ট্রপতি। তিনি ওয়াগেট কেলেংকারীর সাথে জড়িত হয়ে ১৯৭৪ সালে পদত্যাগ করেন। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন তার পররাষ্ট্র মন্ত্রি ছিলেন হেনরি কিসিঞ্জার।

জিমি কাটারঃ যুক্তরাষ্ট্রের ৩৯ তম প্রেসিডেন্ট। তাঁর মধ্যস্থতায় ১৯৯৪ বসনিয়া যুদ্ধ বিরতি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। তিনি ২০০২ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ করেন।

ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্টঃ যুক্তরাষ্ট্রের ৩২ তম প্রেসিডেন্ট। একমাত্র প্রেসিডেন্ট ১২ বছর ক্ষমতায় ছিলেন ১৯৩৩-১৯৪৫ ১২ এপ্রিল জাতিসংঘের প্রস্তাবক।

হ্যারি ট্রুম্যানঃ ৩৩ তম প্রেসিডেন্ট। জাপানে মানবিক বোমা নিক্ষেপের সময় ক্ষমতা ছিলেন।

রোনাল্ড রিগ্যানঃ ৪০ তম প্রেসিডেন্ট। অভিনয় শিল্পী ছিলেন।

বিল ক্লিনটনঃ যুক্তরাষ্ট্রের ৪২ তম প্রেসিডেন্ট। বাংলাদেশী আগমনকারী প্রথম প্রেসিডেন্ট ২০০০ সালের ২০ মার্চ। ২১ নভেম্বর ১৯৯৫ ডেটন চুক্তির মধ্যস্থতাকারী। এই চুক্তির মাধ্যমে বসনিয়া চুক্তিযুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে। My Life গ্রন্থের লেখক।

বারাক ওবামাঃ ৪৪ তম প্রেসিডেন্ট। ১৯৬১ সালে হাওয়াই অঙ্গরাজ্যে জন্মগ্রহণ। প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ এবং চতুর্থ নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী ২০০৯ সালে। পৈতিক নিবাস কেনিয়ার কুগিলো গ্রামে। সিনেটর ছিলেন ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের। অডেসিটি অব হোপ, ড্রিমস ফ্রম মাই ফাদার, ইট টেকস এ ন্যশন

ভ্লাদিমির ইলিচ উলিয়ানভ লেলিনঃ বলশেভিক বিপ্লবের নেতা ছিলেন। ১৯২৪ সালের ২১ জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন। মস্কোর রেড স্কোয়ারে তার জমি রয়েছে। বিপ্লবের সময় তার ছদ্মনাম হলো লেলিন।

যোসেফ স্ট্যালিনঃ দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধের সময় সোভেয়েত ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট ছিলেন। ‘‘পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা’’ নীতির প্রবর্তক ছিলেন যোসেফ স্ট্যালিন। তার সময়ের (১৯৩২-১৯৩৩) দুর্বিক্ষ হোলোডোমোর নামে পরিচিত।

মিথাইল গর্বাচেভঃ সোভিয়েত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট যিনি অবাধে জমি কেনা বেচার অনুমোদন দেন। গ্লাস্তনপ্ত (মুক্ত আলোচনা) ‘‘পেরৌস্ত্রকা’’ নীতির প্রবর্তক।

নেপোলিয়ন বোনাপার্টঃ ১৭৬৯ সালে কর্সিকা দ্বীপে জন্ম। নেপোলিয়ন ১৮০৪ থেকে ১৮১৪ মেয়াদে ফ্রান্সের রাজা ছিলেন। তাঁকে ফরাসি বিপ্লবের শিশু বলা হয়। তাঁকে লিটল করপোরাল বলা হয়। তিনি ওয়াটার লুর যুদ্ধে ডিউক অব ওয়েলিংটন নিকট পরাজিত হন। প্রথমে এলকা দ্বীপে ১৮১৪ পরে সেন্ট হেলেনা দ্বীপে নির্বাসনে থাকা অবস্থায় ১৮২১ সালে মৃত্যুবরণ করেন। তোমরা আমাকে শিক্ষিত মা দাও, আমি তোমাদেরকে উন্নত জাতি দান করব।

জামাল আব্দুল নামেরঃ মিশরের প্রেসিডেন্ট। NAM এর উদ্যোক্তা

মার্শাল যোসেফ টিটোঃ যুগোশ্লাভিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট।

ডঃ আহমেদ সুকর্ণঃ ইন্দোনেশিয়ার জাতির পিতা ও প্রথম প্রেসিডেন্ট। NAM প্রথম পঞ্চশীলা নীতির প্রবর্তক।

টেঙ্কু আব্দুর রহমানঃ মালয়েশিয়ার স্বাধীনতার জনক ও প্রথম প্রধানমন্ত্রী। NAM এর প্রথম মহাসচিব ছিলেন।

ডঃ মাহাথির মোহাম্মদঃ মাহাথির মোহাম্মদ ১৯৮২-২০০৩ ২২ বছর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন

নেলসন ম্যান্ডেলাঃ ১৯১৮ সালে জন্ম। ১৯৬৪ সালে তাকে আজীবন কারাদন্ড প্রদান করা হয় এবং তাকে রোবেন দ্বীপে বন্দী রাখা হয়। তার কয়েদী নম্বর ৪৬৬ সাজা প্রদানের সাল ১৯৬৪ মিলিয়ে কয়েদী পরিচয় নম্বর ৪৬৬৬৪। তিনি ২৭ বছর জেল খাটেন। প্রেসিডেন্ট এফ ডব্লিউ ডি ক্লার্ক তাঁকে মুক্তি দেন। ১৯৯৩ সালে ডি ক্লার্ক ও নেলসন ম্যান্ডেলা শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তাঁর রাজনৈতিক দলের নাম ANC ১৯১২ সালে প্রতিষ্ঠিত। ‘‘মাদিবা’’ তার ডাক নাম। ৪৬৬৬৪ ক্যাম্পেইন হলো নেলসন ম্যান্ডেলার এইডস বিরোধী প্রচার অভিযানের প্রতীক (২০০৩)। ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ সফরে আসেন। A Long walk to Freedom এবং  Conversations Myself.

ইয়াসির আরাফাতঃ ১৯২৯ সালে কায়রোতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৪ সালে PLO  গঠিত হয়। আরাফাত ১৯৬৯ সালে চেয়ারম্যান হন। ডাক নাম আবু আমর। রাজনৈতিক দলের নাম আল ফাতাহ। ১৯৯৪ সালে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান। ২০০৪ সালে ফ্রান্সের পার্সি সামরিক হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করন। রামাল্লায় তাকে দাফন করা হয়।

অংসান সুচিঃ ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (NLD) ১৯৯০ সালে বিজয় অর্জন করে। ১৯৯১ সালে তিনি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

মোহনদাস করম চাঁদ গান্ধীঃ ভারতের জাতির জনক। (অহিংস দিবস) ২ অক্টোবর ১৮৬৯ গুজরাটে জন্ম  তিনি দক্ষিণ আফ্রিকায় ‘‘দি ক্রনিকেল’’ পত্রিকা সম্পাদনা করতেন। The Story of My Experiment With Truth. ৩০ জানুয়ারি ১৯৪৮ নাথুরাম গডসে তাকে হত্যা করে ।

মাও সেতুংঃ গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের প্রথম চেয়ারম্যান।

হোচিমিনঃ ভিয়েতনামের প্রতিষ্ঠাতা আঙ্কেল হো নামে পরিচিত। হোমিচিন সিটির পূর্বনাম মায়গন

স্যার রবার্ট ওয়ালপোলঃ বৃটেনের প্রথম প্রধানমন্ত্রী। ১৭২১-১৭৪২ প্রায় ২০ বছর

উইনস্টন চার্চিলঃ দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধের সময় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। History of the Second World War গ্রন্থের জন্য ১৯৫০ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান।

মার্গারেট থ্যাচারঃ বৃটেন ভাষা ইউরোপের প্রথম প্রধানমন্ত্রী। ১৯৭৯ সালে কনজারভেটিভ পার্টি থেকে। লৌহমানবী ১৯৭৯-১৯৯০ (১১) বছর ক্ষমতায় ছিলেন।মাদাার তেরেসাঃ মিশনারিজ অব চ্যারিটির প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৯০ সালে মেসিডোনিয়ার জন্ম। প্রকৃত নাম অ্যাগনেস হানকা বোায়াজিউ। ১৯৪৭ সালে ভারতীয় নাগরিকত্ব গ্রহণ ১৯৭৯ সালে শান্তিতে নোবেল পান

 মোস্তফা কামাল পাশাঃ আধুনিক তুরস্কের জনক আতাতুর্ক
এডলফ হিটলারঃ ১৮৮৯ অস্ট্রিয়ায়। ১৯৩৩ সালে জার্মানির চ্যান্সেলর হন। গোপাল-পুকিমা বাহিনী গেস্টাপো। যুদ্ধই জীবন, যুদ্ধই সর্বজনীন, Mein Kampf (My Struggle). ৩০ এপ্রিল ১৯৪৫ আত্মহত্যা করেন।

মুহাম্মদ আলী জিন্নাহঃ ১৮৭৬ করাচিতে জন্ম। পাকিস্তানের প্রথম গভর্নর জেনারেল মুহম্মদ আলী জিন্নাহ। কায়েদই আজম, জনক দ্বিজাতিতত্ত্ব। ১১ সে. ১৯৪৮ মৃত্যু।

চে গুয়েভরাঃ ১৯২৮ সালে আর্জেন্টিনায় জন্ম। পেশায় চিকিৎসক ছিলেন। ১৯৬৭ সালে ৯ অক্টোবর বলিভিয়ায় নিহত।

ষোড়শ লুইঃ ১৭৮৯ সালে ফরাসি বিপ্লবের সময় ফ্রান্সের রাজা ছিলেন ষোড়শ লুই। ১৭৯৩ মৃত্যু দন্ডে দন্ডিত করা হয়।

বেনজির ভুট্টোঃ ১৯৫৩ করাচির লারকানায় জন্ম। ডটার অবাদি ইষ্ট। ২৭ ডিসেম্বর ২০০৭ সালে আততায়ীর গুলিতে।

কার্ল-মার্কসঃ ১৮১৮ জার্মানি। সমাজতন্ত্রের প্রবর্তক। | Das Capital গ্রন্থের লেখক। ১৮৮৩ সালে লন্ডনে মৃত্যুবরণ

নিকোলাস কোপার্নিকাসঃ সূর্যের চতুর্দিকে পৃথিবী এবং অন্যান্য গ্রহের ঘূর্ণনের মতবাদ প্রথম প্রদান।

আলবার্ট আইনস্টাইনঃ ১৮৭৯, জার্মানিতে জন্ম। রিলেটিভিটি সূত্র E=mc2 , ১৯২৯ সালে পদার্থ

Share on

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − 13 =