44th_bcs online application

৪৪তম বিসিএসে স্নাতক ফলপ্রত্যাশীরাও আবেদন করতে পারবেন

৪৪তম বিসিএস পরীক্ষার অনলাইন আবেদনের সময় বাড়িয়েছে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)। আগামী ২ মার্চ পর্যন্ত এ সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে কারও স্নাতক/ স্নাতকোত্তর পরীক্ষা শেষ হলে তিনিও আবেদনের সুযোগ পাবেন। 44th bcs online application

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) নূর আহমেদ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ৪৪তম বিসিএস পরীক্ষার অনলাইন আবেদনপত্র জমাদানের শেষ তারিখ ৩১ জানুয়ারির পরিবর্তে ২ মার্চ পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এ বিসিএসে আবেদনকারী প্রার্থীর যোগ্যতায় সংশোধন করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, যদি কোনো প্রার্থী এমন কোনো পরীক্ষায় অবতীর্ণ হয়ে থাকেন যে পরীক্ষায় পাস করলে তিনি ৪৪তম বিসিএসে অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করবেন, যদি তার ওই পরীক্ষার ফলাফল ৪৪তম বিসিএসের আবেদনপত্র জমাদানের শেষ দিন পর্যন্ত প্রকাশ না হয়- তাহলেও তিনি অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। তবে তা সাময়িকভাবে গ্রহণ করা হবে। 44th bcs online application

ওই আবেদনকারীদের ৪৪তম বিসিএসের আবেদনপত্র গ্রহণের শেষ দিনের মধ্যে স্নাতক পর্যায়ের সব লিখিত পরীক্ষা শেষ হতে হবে। অর্থাৎ আগামী ২ মার্চের মধ্যে যাদের স্নাতক পরীক্ষা শেষ হবে, তারা ৪৪তম বিসিএসে আবেদন করতে পারবেন।

আরও পড়ুন: ছুটি আর বাড়ছে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের !

Whatsapp Group এ Join করুন

আরও পড়ুন:
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব হিসেবে যোগ দিয়েছেন মো. আমিনুল ইসলাম খান। 

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টায় তিনি মন্ত্রণালয়ে আসেন। এ সময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন তাকে অভ্যর্থনা জানান।

পরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পরিচিতি সভায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী নতুন সচিবকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, নতুন সচিব তার মেধা, প্রজ্ঞা, বুদ্ধি, বিবেচনাবোধ দিয়ে সুন্দরভাবে মন্ত্রণালয় পরিচালনা করবেন এবং প্রাথমিক শিক্ষার প্রতি বর্তমান সরকারের সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপের বিষয় বিবেচনায় আন্তরিকতা ও দক্ষতার সঙ্গে কাজ করবেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব মো. আমিনুল ইসলাম

সচিব আমিনুল ইসলাম খান বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা জাতির ভিত রচনা করে, শিশুর আগামীর পথচলা নির্দেশ করে, জাতির উন্নতি ও অগ্রগতি প্রাথমিক শিক্ষার বহুলাংশে নির্ভরশীল। তাই প্রাথমিক শিক্ষার গুণগতমানের সঙ্গে আপস করা চলবে না। এজন্য শিক্ষকদেরও যথাযথ প্রশিক্ষণ দিতে হবে। তিনি মন্ত্রণালয়ের সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মো. মনসুরুল আলম, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু বকর সিদ্দিক, রুহুল আমিন, ও মোশাররফ হোসেন, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক আতাউর রহমানসহ মন্ত্রণালয় ও অধীন সংস্থাগুলোর ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা।

Share on

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 5 =